রোহিঙ্গা মা

সমতল থেকে প্রায় ২০০ ফুট উঁচুতে ওয়ালাদং পাহাড়। মিয়ানমার-বাংলাদেশকে বিচ্ছিন্ন করেছে এই পাহাড়। স্থানীয়দের মধ্যে এ পাহাড় নিয়ে নানা উপকথা প্রচলিত রয়েছে। তাদের ধারণা সেখানে রয়েছে হিংস্র জীবজন্তুর বসবাস। মিয়ানমার বাহিনীর নির্মমতা থেকে বাঁচতে প্রাণপণ ছুটে চলা এক সন্তানসম্ভবা নারী প্রসব বেদনা নিয়ে ঢুকে পড়েছিলেন সেই ওয়ালাদং পাহাড়ের গুহাতেই। সেখানেই জন্ম দিয়েছেন এক ফুটফুটে পুত্রসন্তান।

ওই তরুণীর নাম হাসিনা বেগম (২০)। রাখাইন রাজ্যের মিজ্জালিপাড়ার বাসিন্দা নূর হাকিমের স্ত্রী তিনি। এক বছর আগে বিয়ে হয়েছে তাদের। গত ২৫ আগস্ট রাতে মিয়ানমারে সহিংসতার ঘটনায় রাখাইন রাজ্য থেকে দলে দলে রোহিঙ্গারা চলে আসতে থাকে বাংলাশে সীমান্তের দিকে। তাদের সঙ্গে নূর হাকিম ও হাসিনা দম্কতিও সীমান্তের পথ ধরেন।

নির্যাতনের ভয়ে রোহিঙ্গারা আশ্রয় নেয় ওয়ালাদং পাহাড়ের গুহায়। ইতিমধ্যে সেখানে ঠাই নিয়েছে অসংখ্য রোহিঙ্গা। সেই মানুষের ভিড়ে একপর্যায়ে নূর হাকিম আর হাসিনা পরস্করকে হারিয়ে ফেলেন। স্বামীকে হারিয়ে বিচলিত হয়ে পড়েন হাসিনা। শেষে নিয়তির ওপর ভরসা করে অন্যদের সঙ্গে সীমানে্তর পথে হাঁটা দেন তিনি।

চলার পথে প্রতিবেশী এক নারীর সঙ্গে দেখা হয়ে যায় হাসিনার। বাংলাদেশ সীমান্ত তখন আরো বেশ খানিকটা দুরে। এ অবস্থায় গত শনিবার গভীর রাতে প্রসব বেনা শুরু হয় হাসিনার। শেষে ওই প্রতিবেশীর সঙ্গে আশ্রয় নেন পাহাড়ের এক গুহায়। মিনিট বিশেক পর ভূমিষ্ঠ হয় ফুটফুটে এক পুত্রসন্তান। পরের দিন নবজাতক কোলে নিয়ে দুর্বল শরীরে নাইক্ষ্যংছড়ির ঘুনধুম ইউনিয়নের রেজু আমতলী সীমান্ত পয়েন্টয়ে বাংলাদেশে অনুপ্রবেশ করেন তিনি।

গতকাল সকালে আমতলী সীমান্ত থেকে হাসিনা আশ্রয় পেয়েছেন কুতুপালং রোহিঙ্গা শিবিরে। এখন ছেলের মুখের দিকে তাকিয়ে দুঃখ ভুলতে চান তিনি।

গতকাল সোমবার প্রতিক্রিয়ায় জানালেন, সন্তানের ফুটফুটে চেহারাটি খেই মন জুড়ায়। এ আনন্দ ভাষায় প্রকাশ করা যাবে না।

Advertisements

Leave a Reply

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out /  Change )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out /  Change )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out /  Change )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out /  Change )

w

Connecting to %s